টোনাটুনির, কাঁচা মরিচ, নষ্ট না করে ব্যবহারের কায়দা 😎😎

পোস্টটাকে কালারফুল করবার জন্য কাঁচা-পাকা মরিচওয়ালা ছবি ব্যবহার করা হইছে। দুই একটা পাকা মরিচও তো চলে আসে :3

রোজকার রান্নায় কাঁচা মরিচ ছাড়া আমাদের চলেই না। তবে কাঁচা মরিচ বেশি আর কম যে পরিমাণেই কেনা হোক, পচে নষ্ট হওয়া আর সেগুলো ফেলে দেয়া ভালোই বিরক্তিকর সমস্যা। উপর থেকে ব্যবহার হতে থাকে, আর নিচেরগুলো পচে ভর্তা হতে থাকে। -_-

আমরা একটা কায়দা করে এই পচে নষ্ট হওয়া ঠেকিয়ে দিব্যি দিনের পর দিন কাঁচা মরিচ ব্যবহার করে যাচ্ছি। কায়দাটা এখানে শেয়ার করছি। যদি আরও কেউ এই উপায়ে উপকার পায় সে কথা মাথায় রেখে। 🥰

কাঁচা মরিচ বাজার থেকে আনবার পর, প্রথম কাজ, বাটি প্লেট সেট করে বোঁটা ছাড়াতে বসতে হবে। আর হ্যাঁ, যে পরিমাণই নিন, মরিচ সব সময় আলাদা ব্যাগে দিতে বলা ভালো। অন্য সবজির সাথে মিশে গেলে পরে বেঁছে আলাদা করে নেয়া লাগবে। :3

বাজার থেকে আনা ব্যাগে ভালো মরিচ, আগা ভাঙ্গা মরিচ, খানিকটা পচে গেছে এমন মরিচ- মোটামুটি এই ৩ পদের মরিচ থাকে। বোঁটাগুলো এক এক করে ছাড়িয়ে নিতে হবে। দুই একটা আগা ভেঙ্গে যাওয়া মরিচ পেলে ফেলার দরকার নেই। ওগুলো নিতে পারেন, ব্যবহার করা যায়। যে প্রসেস বলছি তাতে পচে যায় না। তবে বোঁটা ছাড়াবার সময় পচা মরিচ পেলে, সেটা ফেলে নেবেন।

বোঁটা ছাড়ানো হলে পরে এবার ধুয়ে নিতে হবে। পরিষ্কার করে ধুয়ে পানি ঝরিয়ে নেব। মরিচের গায়ে খুব ময়লা থাকে না, একবার ধুলেই হয়। তারপরও মনের শান্তির জন্য দুইবার ধুয়ে নিতে পারেন। আলতো করে কচলে ধুতে হবে। এমন জোরে না যে মরিচ ভেঙ্গে যায়! লিখে এতটুকুই বলতে পারছি। বাকিটা নিজে করে বুঝতে হবে!! 😂

শক্তভাবে আটকে থাকে তবে খুলতে সহজ এরকম একটা বা তার থেকে বেশি বাটি, মরিচের পরিমাণ বুঝে, ছোট বড় সাইজ যেটা ভাল্লাগে নেবেন। বাটি বা বাটিগুলো পরিষ্কার না থাকলে ধুয়ে নেবেন, আর থাকলে তো পরের স্টেপ এ চলে যাব আমরা। বাটিতে, এবার ধুয়ে, পানি ঝরিয়ে রাখা চকচকা, ঝকঝকা মরিচগুলো রেখে, ফ্রিজের ফ্রিজার বা ডিপ সেকশনে আমরা রাখব। আবার বলছি, ফ্রিজার বা ডিপ সেকশনে রাখব। নরমাল সেকশনে নয়।

প্রশ্ন আসতে পারে বরফে জমে থাকা মরিচ দরকারের সময় ছাড়বে তো?! হ্যাঁ, ছাড়বে। প্লাস প্রতিদিন বোঁটা ছাড়াও, ধুয়ে নাও এই স্টেপগুলো রিপিট করতে যাদের মুশকিল লাগে, তাদের জন্য মুশকিল আসান। রান্নার টুকিটাকি কাজগুলো করবার সময় মরিচ যখন নিতে হবে, ঢাকনা খুলবেন, রুম টেম্পারেচারের বাতাস গায়ে লাগা মাত্র মরিচ পিস বাই পিস ছাড়ানো যায়। 😌😌

১ কি ২ সেকেন্ড বড়জোর অপেক্ষা করা লাগতে পারে। আগেই তো নিচের দিকের মরিচ ব্যবহার করতে যাব না আমরা। উপরেরগুলো ঠিকই ছাড়ে। শেষ কথা- মরিচ ছেড়ে আসতে কোন ঝামেলা হয় না। আর এই মরিচগুলোকে ফালি করা, কুচি করা, চিরে নেয়া, ভর্তার জন্যে ভাজি বা সেদ্ধ করা যা করতে মন চায়-সবই করা যায়। :3

মরিচ নিয়ে এত কাহিনী কেন??

পচে যায় বলে, মরিচ অল্প করে আনা হত। মানে ২৫০ গ্রাম করে। আরও কম করেও মনে হয় শুরুতে আমরা আনতাম। কিন্তু সে ২৫০ গ্রাম থেকেও এখন একটা, তখন দুইটা এমন করে ৬-৭টা পচা পেলেই ফেলে দিতে হচ্ছিলো। মরিচের দাম সম্পর্কে যাদের আইডিয়া আছে, তারা হয়তো বুঝবেন এই ৬-৭টার জন্যে কেন মায়া চলে আসে। 😟😟😟

বোঁটা ছাড়িয়ে, ধুয়ে, বাটিতে টিস্যু পেপার এর লেয়ার বিছিয়ে রেখে, ফ্রিজের নরমাল সেকশনে রেখেও পচে যাওয়া থামানো যাচ্ছিলো না। রোজকার রান্নায় মরিচ লাগে, তবে অনেক তো আর লাগে না। পচে যাচ্ছে এটা মেনে নিতে পারছিলাম না। জাস্ট মরিচের জন্যে বাজারে খুব ঘন ঘন না হলেও, একেবারে যে কম যাওয়া পরত এমন নয়।

বাসা বাড়ির ফ্রিজগুলোতে সাধারণত ফ্রিজ (নরমাল) আর ফ্রিজার (ডিপ) দুইটা পার্ট থাকে। ফ্রিজ তো সবসময় খাবার আর মাছমাংস রাখতে লাগে জেনে আসছি। কিন্তু ফ্রিজ যে কত শক্তিশালি একটা টুল তা এখন ঘর সামলাতে গিয়ে জানতে পারছি। এই ফ্রিজ নিয়ে সামনে আরও কথা হবে। 🤓 🤓

আজকে মরিচ নিয়ে শেষ করি। ফ্রিজ বা নরমালে মরিচ রেখে মনমতো ফল পেলাম না। এরপর ফ্রিজার বা ডিপ সেকশনে উপরে বলা প্রসেস মতো রেখে, ফাইনালি এখন চিন্তামুক্ত হয়েছি। এখনকার লেখাটাও সেই চিন্তামুক্তির জায়গা থেকে লেখা। ❤

এই ডিপ থেরাপি জানার পর থেকে ১ কেজি করে মরিচ আনি আমরা। প্রসেস করে ডিপে তুলে রাখি। আর রোজ ব্যবহার করি নিশ্চিন্তে। আমাদের নষ্ট না করবার লক্ষ্যটা অটুট থাকে। 🤩

টোনাটুনির ভালই চলে যায়। প্রয়োজনমত মরিচ ছাড়িয়ে নিয়ে ব্যবহার করা যায়। মরিচের স্বাদে কোন ক্ষতি হয় না, অথচ নষ্ট হয়ে যাবার টেনশন থেকে সারা জীবনের মুক্তি। 🥳 🥳

একটা কথা বলে রাখি। এখানে শেয়ার করা টিপসটা সবার জন্য প্রযোজ্য নাও হতে পারে। এখানে ফ্রিজের ফ্রিজার সেকশন নিয়ে কথা বলা হয়েছে। অনেকের ফ্রিজ না থাকতে পারে, ফ্রিজ থাকলেও জায়গা না থাকতে পারে- ইত্যাদি নানান ইস্যু থাকতে পারে। আবার অনেকের কাছে একেবারে মরিচ প্রসেস করবার আইডিয়াই বাড়তি ঝামেলা মনে হতে পারে। :/

তবে কেউ জানতে আগ্রহী থাকলে, পরে কাজে লাগাতে চাইলে ইউ আর ওয়েলকাম। এরকম তথ্য খুঁজে থাকলে, এবার কাজে লাগিয়ে দেখতে পারেন। আপনার বেলায় কাজ করে কিনা। কাজ করলে ভালো, না হলে আপনার সুবিধামতই করবেন। নো হার্ড ফিলিংস! ❤ ❤ ❤

--

--

Life never ceases to amaze me. through smile, through pain — in every form. My plan is sharing my vast area of interests, life from my perspective here.

Love podcasts or audiobooks? Learn on the go with our new app.

Get the Medium app

A button that says 'Download on the App Store', and if clicked it will lead you to the iOS App store
A button that says 'Get it on, Google Play', and if clicked it will lead you to the Google Play store
Bithi Sumaiya

Bithi Sumaiya

Life never ceases to amaze me. through smile, through pain — in every form. My plan is sharing my vast area of interests, life from my perspective here.